,

ThemesBazar.Com

রামগঞ্জে শিশু সীমার পাশে দাড়ালেন এস আই জহির

চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন এক লক্ষ টাকা। তাতেই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার সোনাপুর গ্রামের বাঘের বাড়ীর দরিদ্র ফাজিল মিয়ার কোমলমতি শিশু কন্যা।

 

রামগঞ্জ উপজেলার ছোট্ট শিশু সীমা, টাকার অভাবে উন্নত চিকিৎসা হচ্ছে না তার। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের বেডে কাতরাচ্ছে। এমতাবস্থায় এগিয়ে আসেন লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ থানার এস আই জহির ঊদ্দিন।

 

সীমার চিকিৎসার খরচ যোগাড় করতে প্রান-পনে কাজ করে যাচ্ছেন রামগঞ্জ থানার এস আই জহির ঊদ্দিন। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে সবার কাছে সীমার চিকিৎসার জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এতে তার ডাকে অনেকেই সাড়া দেন। এবং বেশ কিছু টাকা সংগ্রহ করেন।

 

সীমার পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ৪ বছর আগে কুপি বাতির আগুনে পুড়ে যায় সীমার শরীর। দগ্ধ হয় সীমার হাত, পেট ও শরীরের বিভিন্ন অংশ। আর্থিক সংকটের কারনে প্রাথমিক চিকিৎসা ছাড়া উন্নত চিকিৎসা করাতে পারেনি দরিদ্র পিতা-মাতা। বর্তমানে স্থানীয়দের সহযোগীতায় কিছু টাকা নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন সীমাকে। কিন্তু তার সম্পূর্ন চিকিৎসা খরচের জন্য এখনো এক লক্ষ টাকা প্রয়োজন। তাই তারা সমাজের বিত্তবানদের কাছে সহযোগীতা কামনা করেছেন।

শাহে ইমরান,রামগঞ্জ(লক্ষ্মীপুর)প্রতিনিধি।

ThemesBazar.Com

     এই বিভাগের আরো খবর