,

ThemesBazar.Com

ব্রাজিলকে বিদায় করে সেমিতে বেলজিয়াম

বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট ব্রাজিলকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে সেমিফাইনালে বেলজিয়াম। শেষ মুহূর্তে আক্রমণ করেও বেলজিয়ামের রক্ষণব্যুহ ভাঙতে ব্যর্থ হয় সেলেসাওরা। ফলে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিল পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে কাজান এরিনায় মুখোমুখি হয় ব্রাজিল-বেলজিয়াম। আক্রমণাত্মক সূচনা করে ব্রাজিল। সূচনালগ্নে নান্দনিক ফুটবলের পসরা সাজায় সেলেকাওরা। ফলে সুযোগ আসতেও বিলম্ব হয়নি। তবে ৮ মিনিটে তা কাজে লাগাতে পারেননি থিয়াগা সিলভা।

পরেও আক্রমণের ধারা বজায় রাখে ব্রাজিল। কিন্তু ১৩ মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। কর্নার থেকে কেভিন ডি ব্রুইনার ক্রসে ফার্নান্দিনহোর আত্মঘাতী গোলে লিড পায় রবার্তো মার্টিনেজের শিষ্যরা।

পিছিয়ে পড়ে গোল পেতে মরিয়া হয়ে পড়ে ব্রাজিল। আরেকটি গোল হজম করে এর খেসারত গুনতে হয় তাদের। ৩১ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে ফেলাইনির কাছ থেকে বল পান লুকাকু। মাঝমাঠ থেকে তা একাই টেনে চারজনকে কাটিয়ে বল বাড়ান ডি ব্রুইনার দিকে। ডি বক্সের বাইরে থেকে অসামান্য দক্ষতায় দূরপাল্লার বুলেট শটে তা জালে বল জড়ান তিনি। এতে স্কোরলাইন হয় বেলজিয়াম ২-০ ব্রাজিল।

এরপর আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠে বেলজিয়াম। মুহুর্মুহু আক্রমণে ব্রাজিল শিবিরে ত্রাস ছড়ান বেলজিয়ানরা। তবে আর গোলের দেখা পায়নি তারা।

গোল পেতে বিরতির পর বেলজিয়ামের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে সেলেকাওরা। একের এক আক্রমণে রেড ডেভিলদের ব্যতিব্যস্ত রাখে তারা। এবার তাদের আক্রমণ আলোর মুখও দেখে। ৭৬ মিনিটে দুর্দান্ত হেডে লক্ষ্যভেদ করে ব্যবধান কমান অগাস্টো রেনোতো। এতে লড়াইয়ে ফেরার ইঙ্গিত দেয় ব্রাজিল।

লড়াইয়ের ফেরার সুযোগও পায় তারা। তবে শেষদিকে ডি বক্সে নেইমারের বাড়ানো বল নাগালে পেয়েও তা ঠিকানায় পাঠাতে পারেননি কুতিনহো। ফলে হারের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ব্রাজিলকে।

 

ডেস্ক রিপোর্ট, ক্রাইম ওয়াচ।

ThemesBazar.Com

     এই বিভাগের আরো খবর